আমাদের বিদ্যালয়ে আপনাদের স্বাগতম

তিলাবদুল আব্দুল মজিদ উচ্চ বিদ্যালয়ের ইতিহাস


অত্র বিদ্যালয়টি জয়পুরহাট জেলার ক্ষেতলাল উপজেলা সদরে ক্ষেতলাল পৌরসভা এলাকায় বগুড়া- জয়পুরহাট রাস্তার উত্তরপার্শ্বে উপজেলা পরিষদ ও রাস্তার দক্ষিণ পার্শ্বে সুন্দর ও মনোরম পরিবেশে অবস্থিত। বিদ্যালয়টি ১৯৪২ ইং সালে প্রতিষ্ঠিত হইয়া ১৯৪৫ ইং সালে মাধ্যমিক বিদ্যালয় হিসাবে মঞ্জুরী প্রাপ্ত হয়। ১৯৬২ ইং সালে বিদ্যালয়টি বিজ্ঞান শাখা ও মানবিক শাখা সহ মুঞ্জুরী প্রাপ্ত হয়। অত্র বিদ্যালয়ে কারিগরি শিক্ষা চালু করার লক্ষ্যে ১৯৮৫ সালে কমিউনিটি প্রকল্প আওতায় ঝড়ে পড়া ও বেকার যুবকদের কারিগরি শিক্ষা (গৃহ নির্মাণ, লোহা লক্করের কাজ ও হাউজ ওয়ারিং ট্রেড) চালু করা হয়। ১৯৯৬ সাল থেকে উক্ত কারিগরি শিক্ষা ব্যবস্থা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে অত্র বিদ্যালয়ে এস,এস,সি (ভোকেশনাল) শিক্ষাক্রমে বিল্ডিং মেইনটেন্যান্স জেনারেল মেকানিক্স, জে: ইলেকট্রিক্যাল ওয়ার্কস ও কম্পিউটার ও তথ্য প্রযুক্তি ট্রেড চালু করা হয়। ২০০৪ সালে ব্যবসায় শিক্ষা শাখা সহ মঞ্জুরী প্রাপ্ত হইয়া সুদক্ষ শিক্ষক মন্ডলী দ্বারা যথাযথ ও ভালভাবে শিক্ষাদানের মাধ্যমে পাবলিক পরীক্ষায় ভাল ফলাফল করে সুনামের সহিত পরিচালিত হইয়া আসিতেছে। বিদ্যালয়টি ছেলে ও মেয়ে সহ শিক্ষা চালু আছে। বৃটিশ শাসনামলে অত্র উপজেলা এলাকায় কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছিল না ফলে এলাকার ছেলে মেয়েরা সুদুর জয়পুরহাট ও খঞ্জনপুর এলাকায় এমনকি সুদুর বগুড়ায় গিয়ে পড়াশুনা করতে হত। ফলে গরীব পরিবারের ছেলেমেয়েরা লেখা পড়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত ছিল। গরীব ও বঞ্চিত ছেলেমেয়েদের শিক্ষার আলো দানের লক্ষ্যে অত্র এলাকার কিছু শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিগণ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন। বিদ্যালয়টিতে ০৩টি পাকা ভবন, ৩টি আধাপাকা ভবনে মোট ২৪টি কক্ষ আছে। সাপ্লাই পানি সরবরাহ সহ ২টি নলকূপের মাধ্যমে খাবার পানি সহ মেয়েদের পৃথক সহ মোট ৭টি সৌচাগারে পানি সরবরাহ করা হয়। বিদ্যালয়ে একটি নামাজ ঘর ও আছে। বর্তমানে বিদ্যালয়টিকে একটি মডেল বিদ্যালয় হিসাবে উন্নীত করার পরিকল্পনাধীনে রহিয়াছে।


 

====আমাদের শিক্ষকমন্ডলী====